IE নিয়ে কিছু কথা

0
714
কেন পাদুকা শিল্পে এখনো IE কে তেমন ভাবে বুঝতে পারেনা?
উৎপাদন শিল্প হিসেবে গার্মেন্টস বাংলাদেশে প্রথম যাত্রা শুরু করে।বলতে গেলে বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা এখন গার্মেন্টসের উপর ভর করে চলছে।
যেহেতু দেশের প্রায় ৭৫% মানুষ এই গার্মেন্টসের উৎপাদনের সাথে জড়িত তাই এ নিয়ে চিন্তাও বেশি। বাকি ২৫% মানুষ বিভিন্ন উৎপাদনের সাথে কাজ করে যাচ্ছে।
যেহেতু ৭৫% মানুষ গার্মেন্টস শিল্পের সাথে কাজ করে তাই সকলের চিন্তা কিভাবে কাজ করলে এই বিশাল মানুষের সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগানো যায়।আর এই নিয়ে শুরু হলো নতুন এক অভিনবত্বের শিক্ষা ও কাজ যার নাম IE।
যাদের কাজ হবে কিভাবে কাজ করলে কত সংক্ষিপ্ত ভাবে উৎপাদন সম্পন্ন হয়। কিভাবে কাজ করলে কাচামালের ক্ষতি কমানো যায়। যার জন্য তৈরি হলো অভিনব শিক্ষা ও প্রযুক্তির। তৈরি হলো এক দল জনগোষ্ঠীর যারা উৎপাদনের হার বাড়াতে কাজ করে।
উৎপাদন বাড়াতে তাদের কাজই হলো বিভিন্ন কৌশল চিন্তা করা বিভিন্ন প্রযুক্তি গত মেশিনের চিন্তা করা এবং তারা এখন সফল বলা যায়।
তারা এমন ভাবে কাজ শুরু করলো যেখানে আগে ৩৫ জন লোক কাজ করলে যে উৎপাদন হতো এখন সেখানে ২৯ জন লোক কাজ করেও আগের থেকে বেশি উৎপাদন করাতে সক্ষম হয়েছে।
তাই গার্মেন্টসে এই IE এর গুরুত্ব খুব বেশি। এখন তারা বুঝতে শিখেছেন যে সত্যিকার অর্থে IE রা কোম্পানির মেরুদণ্ড হয়ে কাজ করেন।
আর তাই বাংলাদেশ গার্মেন্টস শিল্পের এই IE বিভাগে কাজ করছে হাজার হাজার মানুষ। কিন্তু IE যে শুধু গার্মেন্টসের হয়েই কাজ করতে পারে সেটা নয়। এরা কাজ করতে পারে সকল বিভাগে।
হতে পারে হাসপাতালে।
হতে পারে রেলস্টেশনে।
হতে পারে শপিংমলে। এছাড়া
সকল ক্ষেত্রে এই IE রা কাজ করতে সক্ষম।
এখন আসল কথায় আসি
বাংলাদেশে পাদুকা শিল্পের যাত্রা খুব বেশি দিনের না। এবং তাতে খুব কম সংখ্যার মানুষ কাজ করে বলে তারা এই দিকে নজর দেন না। তারা এটা বোঝেন না কিভাবে এই কাজ গুলো নিয়ন্ত্রণ করবেন।
তারা জানেনা একটা গার্মেন্টসে যে পরিমাণ ক্ষতি হয় তার অনেক গুণ বেশি পাদুকা শিল্পের উৎপাদনে ক্ষতি হয়।
কথা হলো এবিষয়ে না ভাবার কারণ কি?
কারণ পাদুকা শিল্পের কাজ বিদেশিদের কন্ট্রোলে এখনো মনে করেন। চাইনিজরাই এই পাদুকা শিল্পের ভাসমান ভাবে বিভিন্ন দেশে কাজ করেন। যদিও এটা তাদের নিজেস্ব শিল্প বলে মনে করেন। বাংলাদেশে চাইনিজরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ভাড়া নিয়ে পাদুকা শিল্পের কাজ করে সফল ভাবে কামিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বাংলার অর্থ। কারণ বাংলাদেশের শ্রমিকদের কাজের মজুরি সব থেকে কম। যেখানে বাংলাদেশের মানুষ শুধু দর্শকের মত স্বাক্ষী হয়ে আছি।
চাইনিজ রা এই IE কে তাদের মেরুদন্ড মনে করেন বলেই তারা সফল। তারা নিখুঁত ভাবে IE এর উপর বিশ্বাস করেন যে অবশ্যই তারা কোম্পানির গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ। যারা মালিকের তৃতীয় চোখের ন্যায় কাজ করেন।
যা বাংলাদেশের পাদুকা শিল্পের মালিকগণ এখনো উপলব্ধি করতে পারেন নি।
যে দিন গার্মেন্টসের মতন পাদুকা শিল্পের মাঝেও এই রকম গুরুত্বপূর্ণ মনে করবেন সেদিন সফলতা ছুয়ে যাবে।
সেটা খুবই দ্রুত দরকার কারণ পাদুকা শিল্প এখন বাংলাদেশে তুমুল ভাবে ছড়িয়ে যাচ্ছে।
যার কারণ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন আগামীতে অর্থনীতির দ্বিতীয় চাকা হবে পাদুকাশিল্প।
যেখানে Bay footwear Ltd নামের এই কোম্পানি চাইনিজদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত বাংলাদেশী কোম্পানি এবং সেখানে ১০০% IE দ্বারা কাজ করানো হয়। যারা গুণে-মানে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ শিখরে।
তাই পাদুকা শিল্পের জন্য বিশেষ বার্তা সেটা হচ্ছে আপনার পাদুকা শিল্পের IE এর গুরুত্ব বাড়ান এবং সমান সময়ে অধিক মুনাফা বুঝে নিন।